বিশেষ বিজ্ঞপ্তিঃ
আই নিউজ বাংলায় আপনাকে স্বাগতম। দেশের প্রতিটি জেলা এবং উপজেলায় আমাদের সংবাদ দ্বাতা নিয়োগ চলছে। একজন সংবাদ দাতা হিসেবে যোগদান করার জন্য আজই যোগাযোগ করুন।
সর্বশেষ সংবাদ :
চেতনায় ফুলের নাম ২১ ফুলের নাম ৭১ ফুলের নাম স্বাধীনতা রাজধানী টোকিওতে বাংলাদেশ দূতাবাস কর্তৃক যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জাপান শাখা কর্তৃক যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান মাতৃভাষা দিবস পালিত। নোয়াখালীর সেনবাগে গৃহবধূর আত্মহত্যা,শ্বশুর ও শাশুড়ী আটক! সেনবাগে বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত শ্রীপুরের লক্ষ মানুষের শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় দাফন সম্পুর্ণ হলো বীর মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলীর টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা তাপস পাল আর নেই মাতৃভাষা হিসেবে বাংলা বিশ্বের পঞ্চম অবস্থানে জাপান আওয়ামী লীগ শাখা কর্তৃক নবনির্বাচিত কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত নোয়াখালীতে অগ্নিকান্ডে তিনটি ঘর ভস্মীভূত,ক্ষতি ১০ লক্ষাধিক!!
লক্ষ্মীপুরে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সালিশি বাণিজ্যের অভিযোগ

লক্ষ্মীপুরে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সালিশি বাণিজ্যের অভিযোগ

সংবাদ সম্মেলনের চিত্র

শেয়ার করুন

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার করপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল হক মুজিবের বিরুদ্ধে সালিশি বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকালে সাংবাদিকদের কাছে লিখিত একটি পত্রের মাধ্যমে অভিযোগটি করেন একই ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা লোকমান হোসেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন থেকে ৯১নং করপাড়া মৌজার ২২৬৬ ও ২২৫৯ দাগের জমিটি ভোগ করেছেন ভুক্তভোগী লোকমানের বাবা। সে সুবাদে গত ২০১৫ সালে ঐ সম্পত্তিতে পাক ঘর নির্মাণের প্রস্তুতি নেয় সে। কিন্তু করপাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের মুজিবের আত্মীয় ইব্রাহীম জমিটির মালিকানা দাবি করে একটি অভিযোগ করেন গ্রাম্য আদালতে।

পরে ইউনিয়ন পরিষদের সেই আদালতে ১০ বার সালিশি বৈঠক করেছেন চেয়ারম্যান। এতে প্রতি বৈঠকে ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা করে নিয়েও কোন সমাধান করেননি। উল্টো লোকমানদের মালিকানা জমির খতিয়ান সংশোধন করতে চাপ সৃষ্টি করেন। এছাড়াও ঘর নির্মাণে বাঁধা ও হয়রানি করেন। তবে ওই বিরোধকৃত সম্পত্তির কিছু অংশে ইব্রাহীমরা ঘর নির্মাণ করে বসবাস করছেন। মালিকানাধীন জমিতে বাড়ি নির্মাণ করতে না পারায় জরাঝীর্ণ একটি টিনশেড ঘরে মানবেতর জীবন যাপন করছেন উল্লেখ করে লোকমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সহ প্রশাসনিক লোকদের দৃষ্টি কামনা করেন। এসব অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে করপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মুজিবুল হক মুজিব বলেন, ‘সালিশের নামে টাকা আদায় নয়, খতিয়ান সংশোধনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তবে বিরোধকৃত সম্পত্তিতে ইব্রাহীমরা লোকমানদের অনুপস্থিতিতে ঘর নির্মাণ করেছেন।’ তবে খুব শিগ্রই বিরোধটি মীমাংশা করবেন বলে প্রতিবেদককে বলেন এই চেয়ারম্যান।

শেয়ার করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © https://inewsbangla.com
Design BY NewsTheme