বিশেষ বিজ্ঞপ্তিঃ
আই নিউজ বাংলায় আপনাকে স্বাগতম। দেশের প্রতিটি জেলা এবং উপজেলায় আমাদের সংবাদ দ্বাতা নিয়োগ চলছে। একজন সংবাদ দাতা হিসেবে যোগদান করার জন্য আজই যোগাযোগ করুন।
শশীভূষণ থানার ওসির অপসারন ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন

শশীভূষণ থানার ওসির অপসারন ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিনিধি

চরফ্যাশনের শশীভূষণ আঞ্জুরহাট ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার শিক্ষকের সাথে অসাদারচণের প্রতিবাদে শশীভূষণ থানার ওসি মনিরুল ইসলামের অপসারন ও বিচারের দাবীতে ক্লাস বর্জন করে মানববন্ধন করেছেন মাদ্রাসার শিক্ষক ছাত্র/ছাত্রী, কর্মচারী ও অভিভাবকবৃন্দ।

বৃহস্পতিবার(১৩ফেব্রুয়ারী) সকালে শশীভূষণ-আঞ্জুরহাট সড়কে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে ছাত্র/ছাত্রীরা ব্যানার ও বিভিন্ন রকম হাতে লেখা ব্যানার নিয়ে মানববন্ধন করেন। তাদের হাতে ব্যানারে লিখা ছিল শিক্ষকের অপমানের বিচার চাই ইত্যাদি।

শিক্ষার্থীরা জানান,গত বুধবার শশীভূষণ থানার ওসি মনিরুল ইসলাম আঞ্জুরহাট ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার শিক্ষার্থী শিক্ষকদের সামনে মাদ্রাসার হলরুমে শিক্ষক মহিবুল্যাহ সাথে চরম অসাদাচরণর করেন। ওসির উত্ত্যতপূর্ণ অসাদারচণের জন্য তার অপসারন ও বিচারের বাদীতে তাদের এই মানবন্ধন।

তারা বলেন, শশীভূষণ থানার ওসি মনিরুল ইসলামের অপসারন ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান। তারা আরো বলেন শিক্ষক অপমানের সঠিক বিচার চাই, ওসির অপসারন ও বিচার না হওয়া পযর্ন্ত ক্লাস বর্জন করে আরো কঠিন আন্দোলনে নামার ঘোষনা দেন।

উল্লেখ্যঃ গত বুধবার দুপুরে আনজুরহাট ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসায় বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং ও মাদক বিরোধী সচেতনতামূলক সভা করতে যান শশীভূষণ থানার ওসি মনিরুল ইসলাম। মাদ্রাসার হলরুমে সভা শুরুর আগে মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মহিবুল্যাহকে গালমন্দ এবং গ্রেফতারের হুমকী দেন ওসি।

মহিবুল্যাহ জানান, তিনি চর কলমী ইউনিয়নের নিকাহ রেজিস্টার। পাশাপাশি তিনি আনজুরহাট সিনিয়র মাদ্রাসায় সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন। নিকাহ রেজিস্টারের পরিচয় জানার সাথে সাথে ওসি তার উপর আরো চড়াও হন। মারধর করতে উদ্যত হন এবং গ্রেফতারের হুমকী দেন। পরে হলরুমে পূর্বনির্ধারিত সচেতনতামূলক সভায় বক্তব্য দিতে গিয়ে ওসি শিক্ষক মহিবুল্যাহর নৈতিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে তার কাছে পড়ে শিক্ষার্থীরা মানুষ হবে না বলেও আপত্তিকর মন্তব্য করেন।

 

শিক্ষক ও নিকাহ রেজিস্টার মহিবুল্যাহ বলেন, ওসি তার বিরুদ্ধে বাল্যবিবাহের অভিযোগ তোলেন। বিবাহ রেজিস্টেশনের ক্ষেত্রে জম্মনিবন্ধন গ্রহযোগ্য নয় বলে দাবী করেন ওসি। ইহার জবাবে ‘জম্ম নিবন্ধন গ্রহনযোগ্য বলে গেজেট আছে’ দাবী করায় ওসি তার উপর চাড়াও হন এবং শিক্ষার্থীদেরও বিভ্রান্ত করেন,যা গ্রহযোগ্য নয়।
কামরুজ্জামান শাহীন। ভোলা

শেয়ার করুন


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © https://inewsbangla.com
Design BY NewsTheme