1. redwanlkm30@gmail.com : NewsBangla :
শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৩:০১ অপরাহ্ন

ভুয়া ডাক্তারের কেরামতি। লক্ষ টাকা খোয়া গেল ভিকটিমের!

রিপোর্টারের নাম
  • সময় বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৫২৭০ জন নিউজটি পড়েছেন

শাওন হাসান কাজল। ইন্টার্নি করছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে তার ব্যস্ততার অন্ত নেই। ব্যস্ততার ফাঁকে ফাঁকে বিভিন্ন বন্ধু-বান্ধবীদের সাথে আড্ডায় মেতে ওঠেন। সে সুবাদে ফেসবুকে তার বন্ধু বান্ধবির সংখ্যাও অনেক। এভাবেই ফেসবুকে একদিন শাওনের সাথে পরিচয় হয় রূপা হকের। শাওন হাসানই রূপা হককে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠায়। সময় গড়াতে গড়াতে ফেসবুকের ফ্রেন্ডশিপ থেকে মোবাইলে পরবর্তীতে প্রেম। তবে এখনও তাদের সরাসরি দেখা সাক্ষাৎ হয়নি। করোনার কারণে শাওনের ব্যস্ততা অনেক। তবে এরই মধ্যে শাওন রূপার বাবা-মা সহ বিভিন্ন আত্মীয়-স্বজনের সাথে ফোনে কথা বলে ফেলেছেন। শাওন তাদেরকে জানান কিছুদিনের ভিতরেই সে তার পরিবার এবং বন্ধুবান্ধব নিয়ে সরাসরি বিয়ের প্রস্তাব দিতে তাদের বাড়িতে আসবেন।

এরইমধ্যে শাওন কানাডার একটি স্কলারশিপের জন্য সিলেক্ট হয়ে যায়। কিন্তু নিম্নবিত্ত পরিবারের ছেলে হওয়ায় এই মুহূর্তে তাঁর পরিবার পাসপোর্ট ও ভিসা প্রসেসিং এর জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। বাধ্য হয়ে শাওন এ তথ্য রূপাকে জানায় ও সহায়তা প্রার্থনা করে। রুপা তার পরিবারের সাথে আলোচনা করে শাওনের জন্য সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেয়। এভাবে করে বিভিন্ন সময়ে রুপার পরিবার শাওনকে প্রায় আড়াই লক্ষ টাকা প্রদান করে। কিছুদিন পরে বিভিন্ন বিষয়ে শাওনের ব্যাপারে রূপার সন্দেহ হলে শাওন রূপার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। অতঃপর রূপা বুঝতে পারে সে এক প্রতারকের পাল্লায় পড়েছিল।

ভিকটিম রূপা (ছদ্মনাম) সাইবার পুলিশ সেন্টারে যোগাযোগ করলে সাইবার পুলিশ সেন্টারের একটি বিশেষ টিম অভিযান চালিয়ে শাওন হাসান কাজল ওরফে মোঃ মিজানুর রহমান কে বগুড়া জেলার শেরপুর থানা থেকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেফতারকালে মিজানুর রহমানের মোবাইল ফোন হতে চারটি ভুয়া ফেসবুক আইডি পাওয়া যায়। যার ভেতরে তিনটি বিভিন্ন ডাক্তারের পরিচয় দিয়ে খোলা হয়েছে। এর একটি ব্যবহার করা হয়েছিল রূপার সাথে। প্রতিটি আইডিতেই প্রচুর ভিকটিমের সাথে যোগাযোগের তথ্য প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। কেবল তাই নয়, বিভিন্ন ভিকটিমের ব্যক্তিগত তথ্য, গোপনীয় ছবিও ছিল তার দখলে। প্রয়োজন হলে সেগুলো ব্যবহার করতেও পিছপা হয়নি। এমনকি মেডিকেলে বিভিন্ন চাকুরি দেয়ার নাম করে প্রতারণার তথ্যও পাওয়া গিয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় যে কেউ যে সকল তথ্য ও পরিচিতি শেয়ার করছে তা অন্যের পক্ষে ভেরিফাই করে দেখা সম্ভব নয়। এমনকি অনেক ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রতারক চক্র ফেসবুকে পরিচয় এর পরে মোবাইল ফোন ছাড়াও বিভিন্ন উপায়ে ভিকটিমদের কে কনভিন্স করে থাকে। সচেতন নাগরিক হিসেবে আমাদের সবার উচিত কারো সাথে কোন ধরনের সম্পর্ক বিশেষত লেনদেনে যাবার আগে সেই ব্যক্তির ব্যাপারে সকল তথ্য সংগ্রহ করে নেয়া। তা না হলে যে কেউ রূপা ও তার পরিবারের মত প্রতারণার শিকার হতে পারেন।

আপনার ফেসবুক আইডিতে শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved © https://inewsbangla.com
Theme Customization BY TVSite.Com